সমমনা ইসলামি দলগুলোকে নিয়ে মহাজোট : এরশাদ

শনিবার, ০১ এপ্রিল ২০১৭ | ১২:১৫ অপরাহ্ণ | 96 বার

সমমনা ইসলামি দলগুলোকে নিয়ে মহাজোট : এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, সমমনা ইসলামি রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে মহাজোট গড়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তার দলের। ইসলামি মূল্যবোধ এ দেশে প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে আমাদের কোনো মুক্তি নেই, সমাজে শান্তি আসবে না। তিনি বলেন, আমরা স্বাধীনতার চেতনা, ইসলামি মূল্যবোধ এবং বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী সবাইকে নিয়ে একটি জোট করতে চাই। তার নেতৃত্ব যদি আমার হাতে দেন, তাহলে আমি খুশি হবো। আশা করি, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমাদের আশা পূর্ণ হবে। আমরা আরেকটি মহাজোট করব।

গতকাল জাতীয় প্রেস কাবে জাতীয় ইসলামী মহাজোটের আত্মপ্রকাশ উপলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের পর এরশাদ তার নির্বাচনী পরিকল্পনার কথা জানান। জাতীয় ইসলামী মহাজোটের আহ্বায়ক আবু নাছের ওয়াহেদ ফারুকের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, সুনীল শুভ রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আলমগীর সিকদার লোটন, যুগ্ম মহাসচিব জহিরুল আলম রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফকরুল আহসান শাহাজাদা, কেন্দ্রীয় নেতা জাহিদ হোসেন বিপ্লব প্রমুখ।

জাতীয় ইসলামী মহাজোটের ৩৪টি সংগঠনের মধ্যে রয়েছে গণ ইসলামিক পার্টি, পিপলস জাস্টিস পার্টি, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ ইসলামিক লিবারেল পার্টি, জাতীয় শরিয়া আন্দোলন, জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ, বাংলাদেশ জনতা পার্টি, বাংলাদেশ ইসলামী জনকল্যাণ পার্টি, বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামিক লীগ, জমিয়তে মুসলিমিন বাংলাদেশ, ন্যাপ ভাসানী, খেলাফত সংগ্রাম পরিষদ, বাংলাদেশ মানবাধিকার পার্টি, বাংলাদেশ ইসলামী গণ আন্দোলন, জাতীয় ইসলামী আন্দোলন, জমিয়তুল ওলামা পার্টি, জাতীয় ইসলামিক মুভমেন্ট, খেলাফত আন্দোলন বাংলাদেশ, ইনসানিয়াত পার্টি বাংলাদেশ, খেলাফত বাস্তবায়ন পার্টি, ইসলামী আকিদা সংরক্ষণ পার্টি, ইসলামী মূল্যবোধ সংরক্ষণ পার্টি, ইসলামী ফ্রন্ট বাংলাদেশ, মুসলিম জনতা পার্টি, ইসলামী আকিদা সংরক্ষণ আন্দোলন, খেদমতে খালক পার্টি, ওলামা মাশায়েখ সমন্বয় পরিষদ, ইউনাইটেড ইসলামী ফ্রন্ট, বাংলাদেশ ইসলামী পার্টি, ইসলামী সমাজকল্যাণ আন্দোলন, বাংলাদেশ ইত্তেহাদুল মুসলিমিন, বাংলাদেশ খেলাফাতুল উম্মাহ, বাংলাদেশ আকিমুদ দ্বীন মজলিস ও বাংলাদেশ সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট বই পার্টি।

আমেরিকার নাম উল্লেখ না করে পশ্চিমা শক্তির কঠোর সমালোচনা করে এরশাদ বলেন, আমাদের বলা হলো সন্ত্রাসী। সন্ত্রাসী বানালো কে? কেন ইরাকে বোমা নিয়ে গেলেন? কেনো লিবিয়া গেলেন, কেন সিরিয়া গেলেন। আপনারা সন্ত্রাসী বানিয়েছেন। আপনারা লিবিয়াকে ধ্বংস করেছেন। আমাকে সন্ত্রাসী বানিয়েছেন, আপনারা সন্ত্রাসী। ইসলাম সন্ত্রাস বিশ্বাস করে না। আমাদের দেশ আমরা চালাব, আমাদের জনগণ সিদ্ধান্ত নেবে। আপনারা কেন গণতন্ত্র চাপিয়ে দিতে আসেন। আপনারা বিশ্বশান্তি বিনষ্ট করছেন। জোটের আহ্বায়ক আবু নাছের ওয়াহেদ ফারুক বলেন, যোগ্য প্রার্থীর সন্ধথানে শিগগিরই মাঠে নামবে জোট। বিশেষ কমিটি গঠন করা হবে। দলীয় বিবেচনায় নয়, প্রার্থীর যোগ্যতা বিবেচনায় মনোনয়ন দেয়া হবে। অনেক মেধাবী রয়েছে যাদের মূল্যায়ন করা হবে।

Development by: Creative it Solution

error: Content is protected !!