ঢাকা, শুক্রবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
রাজধানীর খিলক্ষেত থানা এলাকা থেকে

ইয়াবা তৈরীর কারখানায় ইয়াবা ক্যামিকেল ও সরঞ্জামাদি সহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার

ইয়াবা তৈরীর কারখান থেকে ইয়াবা ক্যামিকেল ও সরঞ্জামাদি সহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানীর খিলক্ষেত থানাধীন তালেরটেক বাসা নং-খ/৮২/১২ এর ফ্লাট নং-৬/৪এ অভিযান চালিয়ে ৭৫০ পিছ ইয়াবা সহ ০২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী বিভিন্ন উপকরণ এবং যন্ত্রপাতি (ডাইস) দ্বারা নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য (ইয়াবা ট্যাবলেট) তৈরী করে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে।

সহকারী পরিচালক এএসপি মোঃ আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, বাংলাদেশ আমার অহংকার এই শ্লোগান নিয়ে র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই জঙ্গী, সশস্ত্র সন্ত্রাসী, জলদস্যু গ্রেফতার সহ মাদক দ্রব্য উদ্ধারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। সমাজে মাদকের ভয়াল থাবার বিস্তার রোধকল্পে মাদক বিরোধী অভিযানে অন্যান্য আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি র‌্যাব নিয়মিত আভিযানিক কার্যক্রমের মাধ্যমে মাদকের চোরাচালান, চোরাকারবারী, চোরাচালানের রুট, মাদকস্পট, মাদকদ্রব্য মজুদকারী ও বাজারজাতকারীদের চিহ্নিত করে তাদের গ্রেফতারসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। র‌্যাব-২ সব সময়ই মাদকের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ অবদান রেখে চলেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ১৮/১১/২০২০খ্রিঃ তারিখ ০০.৩০ ঘটিকায় র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, রাজধানীর খিলক্ষেত থানাধীন তালেরটেক বাসা নং-খ/৮২/১২ এর ফ্লাট নং-৬/৪ এর ভিতরে কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী বিভিন্ন উপকরণ এবং যন্ত্রপাতি (ডাইস) দ্বারা নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য (ইয়াবা ট্যাবলেট) তৈরী করে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে।

প্রাপ্ত সংবাদের সত্যতা যাচাইয়ের নিমিত্তে র‌্যাব-২ এর একটি আভিযানিক দল ০১.০৫ ঘটিকায় উক্ত বাসার দরজার সামনে উপস্থিত হলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বাসার ভিতর হতে কৌশলে পালানোর চেষ্টাকালে ১। মোঃ এস এম মাসুদ আহম্মেদ (৫৫) এবং ২। মোঃ শামীম রানা (৩৮)’দ্বয়কে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ইয়াবা তৈরী করে বিভিন্ন এলাকায় বিক্রির ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। উক্ত বাসার ভিতর থেকে বিপুল পরিমানে ইয়াবার উপকরণ, ইয়াবা তৈরীর সরঞ্জমাদিসহ ৭৫০ পিস নিষিদ্ধ মাদক (ইয়াবা ট্যাবলেট) পাওয়া যায়।

আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানায়, আসামীরা এক জায়গায় বেশিদিন অবস্থান না করে ঠিকানা পরিবর্তন করে বিভিন্ন জায়গাতে এই ধরনের ব্যবসা করে আসছে। বর্তমান রাজধানীতে নেশা জাতীয় দ্রব্যর ব্যাপক চাহিদা থাকায় রাতাতারি বড়লোক হওয়ার নেশায় নিষিদ্ধ মাদক (ইয়াবা ট্যাবলেট) তৈরী করে রাজধানীর ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রয় করে আসছে। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যাচাই বাছাই করে ভবিষ্যতেও এ ধরনের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আটককৃতরা হলেন, মোঃ এস এম মাসুদ আহম্মেদ (৫৫), পিতা-মৃত এসএম মকবুল আহম্মেদ, সাং- গোদাড়া, থানা- আসাশুনি, জেলা- সাতক্ষীরা, বর্তমান- বাসা নং-খ/৮২/১২ এর ফ্লাট নং-৬/৪ তালেরটেক, থানা- খিলক্ষেত, ডিএমপি, ঢাকা। খ। মোঃ শামীম রানা (৩৮), পিতা- মোঃ তাহের মিয়া, সাং- কালিকাপুর, থানা- রায়পুর, জেলা- নরসিংদী।