ঢাকা, রবিবার, ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সেতুর কাজ দ্রুত এগিয়ে যাওয়ায় স্বস্তিতে পদ্মা পাড়ের মানুষ

শেষ পদ্মাসেতুর রেলিং বসানোর কাজ। সম্পন্ন হয়েছে রেলিং প্যারাপেট ওয়াল বসানোও। মূল সেতুর অগ্রগতি এখন ৯৫ শতাংশের বেশি। দ্রুত গতিতে সেতুর কাজ এগিয়ে যাওয়ায় স্বস্তিতে রয়েছে পদ্মা পাড়ের মানুষ।
স্বপ্নের পদ্মাসেতু এখন চালুর প্রহর গুনছে। সেতুর দুই পাশের রেলিং প্যারপেট ওয়াল বসানো শেষ। শুধু মুভমেন্ট জয়েন্টের জন্য কয়েকটি বসানো হয়নি। মূল সেতু ও সংযোগ সেতুসহ মাওয়া থেকে জাজিরা পর্যন্ত শোভা পাচ্ছে প্যারাপেট ওয়াল।

মূল সেতুর মাঝখানে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ ডিভাইডারের মধ্যে বাকি রয়েছে মাত্র ২শ’ মিটার।

সড়ক পথে চলছে কার্পেটিং। ওয়াটার প্রুফ লেয়ারের উপর প্রথম পর্যায়ে ৬০ মিলিমিটার পুরুত্বে পিচ ঢালাই হচ্ছে। এর উপর ৪০ মিলিমিটার থিকনেসের আরেকটি লেয়ার দেওয়া হবে। ব্ল্যাকটপ হবে ১০০ মিলিমিটার পুরুত্বের।

আর নিচতলায় রেলের পূর্ব পাশেই পুরোদমে বসছে গ্যাস লাইন। সেতুর কাজ প্রায় হওয়ার পথে। তাই খুশি পদ্মা পাড়ের মানুষ।

আগামী ৩০ জুন পদ্মাসেতু খুলে দেওয়ার টার্গেট নিয়েই এখন শেষ পর্যায়ের কাজ চলছে।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, আগামী বছরের ৩০ জুন পদ্মাসেতু খুলে দেওয়ার টার্গেট নিয়েই দ্রুতগতিতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি যথাসময়ে এ কাজ সম্পন্ন হবে।