ঢাকা, রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারি খাতের বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি

প্রস্তাবিত বাজেটে ঘাটতি পূরণে ব্যাংকিং খাত থেকে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৫০০ কোটি টাকা ঋণ নেবে সরকার। এর ফলে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবাহ কমে যাবে বলে জানিয়েছে সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালাগ (সিপিডি)।

আজ বুধবার গুলশানে হোটেল লেকশোরে ‘বাজেট সংলাপ ২০২৪’-এ মূল প্রবন্ধে সিপিডি’র নির্বাহী পরিচালক অর্থনীতিবিদ ড. ফাহমিদা খাতুন এসব কথা বলেন।

ড. ফাহমিদা খাতুন বলেন, প্রস্তাবিত ২০২৪-২৫ অর্থ-বছরে বাজেটে বাজেট ঘাটতি ধরা হয়েছে ২ লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা যা মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ৪ দশমিক ৬ শতাংশ। এই ঘাটতি মেটাতে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া হবে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। যা মোট ঘাটতির ৫৩ দশমিক ৭১ শতাংশ।

 

প্রস্তাবিত বাজেটে এটি একটি অসামঞ্জস্য প্রাক্কলন। এটি অর্জনযোগ্য নয়।

তিনি বলেন, প্রস্তাবিত ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে বাজেটে ৬ দশমিক ৭৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। এরপর বেসরকারি বিনিয়োগ লক্ষ্যও ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু সরকার ব্যাংক থেকে টাকা নেওয়ার ফলে বেসরকারি খাতের জন্য ঋণের জায়গা ছোট হয়ে যাবে। বেসরকারি খাত ঋণ পাবে না। এতে বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ ব্যহত হবে। কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জিত হবে না।

সুদের হার বৃদ্ধির কারণে বেসরকারি খাত এমনিতে চাপের মধ্যে রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সুদহার বাজারের হাতে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে; যদিও সুদ হার বাজারের হাতে ছেড়ে দেওয়া ছাড়া কোন উপায়ও ছিল না। আবার সরকার ব্যাংক খাত থেকে ঋণ নেওয়ার ফলে সুদের হার আরও বাড়বে। এতে সরকারের ঋণের বোঝা আরও বাড়বে।