ইতিহাস গড়ে বিশ্বকাপে পাপুয়া নিউগিনি

সোমবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৯ | ৯:৩৩ পূর্বাহ্ণ | 17 বার

ইতিহাস গড়ে বিশ্বকাপে পাপুয়া নিউগিনি

সবাইকে চমকে দিয়ে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জায়গা করে নিয়েছে পাপুয়া নিউগিনি (পিএনজি)। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে কেনিয়ার বিপক্ষে অবিশ্বাস্য এক জয়ে আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার টিকিট নিশ্চিত করেছে দলটি।

রোববার দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে ১১৮ রানে অলআউট হয় পিএনজি। যা তাড়া করতে নেমে ৭৩ রানের বেশি করতে পারেনি কেনিয়া। ফলে ৪৫ রানের বড় ব্যবধানেই জয় পায় পিএনজি। আর এ বড় জয়ের ফলে পাওয়া নেট রান রেটই তাদের এনে দেয় বিশ্বকাপের টিকিট।

তবে এর চেয়েও বড় বিষয় হচ্ছে, নিজেদের ইনিংসে মাত্র ১৯ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল পিএনজি। সেখান থেকে নরম্যান ভানুয়ার ৪৮ বলে ৫৪ রানের ইনিংসে ভর করে ১১৮ রানের পুঁজি পায় তারা। পরে কেনিয়াকে ৭৩ রানে অলআউট করার পথেও ২টি উইকেট নেন ভানুয়া।

প্রায় দেড়শ বছরের ক্রিকেট ইতিহাসে এত অল্প রানে ৬ উইকেট হারানোর পর ম্যাচ জেতার ঘটনা রয়েছে মাত্র একটি। সেটিও প্রায় ১৩০ বছর, ১৮৮৭ সালের সিডনি টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৭ রানে ৬ উইকেট হারানোর পরেও ম্যাচ জিতেছিল ইংল্যান্ড। সেই স্মৃতিই ফিরিয়ে এনেছে পিএনজি।

তবে এমন অবিস্মরণীয় জয়ের পরেও অবশ্য বিশ্বকাপের টিকিট পাওয়ার অপেক্ষা বাড়তে পারত তাদের। এক্ষেত্রে পিএনজিকে সাহায্য করেছে স্কটল্যান্ড। একইদিন নেদারল্যান্ডস ও স্কটল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচে জয়ী হয় নেদারল্যান্ডস। কিন্তু ডাচরা পারেনি নেট রান রেটের সমীকরণ মেলাতে।

স্কটিশদের করা ১৩০ রানের সংগ্রহ যদি ১২.৩ ওভারে ছুঁয়ে ফেলতে পারতো নেদারল্যান্ডস, তাহলে ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষ দল হয়ে বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত হতো তাদেরই। কিন্তু এ রান তাড়া করতে ১৭ ওভার খেলে নেদারল্যান্ডস। যার ফলে সমান পয়েন্টে নেট রান রেটে এগিয়ে থাকার সুবাদে সবার আগে বিশ্বকাপের টিকিট পায় পিএনজি।

তবে এখনও সব শেষ হয়ে যায়নি নেদারল্যান্ডসসহ ‘এ’ গ্রুপের আরও দুই দলের। বাছাইপর্বের ফরম্যাট অনুযায়ী গ্রুপের শীর্ষ দল সরাসরি পাবে বিশ্বকাপের টিকিট। এছাড়া দ্বিতীয়, তৃতীয় এবং চতুর্থ দল খেলবে প্লে’অফ। এরপর সেখান থেকে দুই দল পাবে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার সুযোগ।

ছয় ম্যাচে ৫ জয় নিয়ে ‘এ’ গ্রুপ থেকে সরাসরি বিশ্বকাপে যাওয়ার টিকিট পেয়েছে পাপুয়া নিউগিনি। সমান পয়েন্ট থাকলেও, নেট রান রেটে পিছিয়ে থাকার কারণে প্লে’অফ খেলতে হচ্ছে নেদারল্যান্ডসকে। এছাড়া নামিবিয়া ও স্কটল্যান্ডও খেলবে প্লে’অফে। এই গ্রুপ থেকে বাদ পড়ে গেছে কেনিয়া, সিঙ্গাপুর ও বারমুডা।

Design & Developed by: Ifad Technology