ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শরীয়তপুরে সরকারী জায়গা দখল করে প্রভাবশালীর মার্কেট নির্মাণ

নড়িয়া উপজেলার ঘড়িসার ইউয়নের হালইসার নন্দনসার উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন সরকারী রাস্তা ও খাল দখল করে স্থানীয় প্রভাবশালী দেলোয়ার বেপরী মার্কেট নির্মান করছে বলে অভিযোগ উঠেছে । এ ব্যাপারে এলাকাসী ও স্কুল কমিটির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারী কমিশনার (ভূমি), নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। গত ৭ এপ্রিল এই অভিযোগপত্র দেয়া হয়।

অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করা হয়, ৬৩ নং হালইসার নন্দনসার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উচ্চ বিদ্যালয় দীর্ঘদিনের পূরনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সুনামের সাথে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা প্রদান করে আসছে। বর্তমানে বিদ্যালয়ের প্রধান গেইট সংলগ্ন সরকারী রাস্তা ও খাল দখল করে স্থানীয় নুরুল হক বেপারীর ছেলে ইটালী প্রবাসী দেলোয়ার বেপারী পাকা মার্কেট নির্মাণ শুরু করেছে। স্থানীয় লোকজন ও বিদ্যালয়ের গভর্নিং বোর্ডের সদসগণ বাঁধা প্রদান করলে নানা রকম অপমানজনক কথাবার্তাসহ হুমকি প্রদান করে। বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে জানানো হয়। দেলোয়ার বেপারী ইতিপূর্বেও রাস্তার পশ্চিম পাশে সরকারি জমি দখল করে দোকান নির্মাণ করেছেন। এতে চলাচলকারী সরকারি রাস্তাটি ছোট হয়ে গেছে। বিশেষ করে সেখানে বখাটে ছেলেদের আড্ডাস্থলে পরিণত হয়েছে। এতে বিদ্যালয়ের মেয়ে শিক্ষার্থীদের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। প্রায় সময় মেয়ে শিক্ষার্থীরা বখাটেদের ইভটিজিং এর শিকার হচ্ছে। স্থানীয় প্রভাবশালী দেলোয়ার বেপারী সমস্ত আইনকানুন ও নিয়মনীতি অমান্য করে অবৈধ দখলদারি চালিয়ে যাচ্ছে।

হালইসার নন্দনসার উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্নিং বডির সভাপতি এসএম এহসানুল হক বলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান গেইট সংলগ্ন সরকারী রাস্তা ও খাল দখল করে ইটালী প্রবাসী দেলোয়ার বেপারী পাকা মার্কেট নির্মাণ করছে। স্থানীয় লোকজন ও স্কুল কমিটির পক্ষ থেকে বাধা দিলে দেলোয়ার বেপারীর লোকজন স্কুলের প্রাধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করেছে। এ ব্যাপারে আমরা জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারী কমিশনার (ভূমি), নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। আমরা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
স্থানীয় এডভোকেট লোকমান, ইস্কান্দার হাওলাদার, তাসলিম আহমেদ, ডা. ফারুক মুন্সী, কামাল আহমেদ শিকদার, রতন কুমার দে সহ অনেকে জানান, দেলোয়ার বেপারী প্রভাব খাটিয়ে স্কুলের সামনে সরকারি খাল ও রাস্তা দখল করে মার্কেট নির্মাণ করছে। এর বিরুদ্ধে কেউ কিছু বললে তাকে অপমান অপদস্ত করে। তার ভয়ে কেউ কিছু বলতে পারছেনা। এ ব্যাপারে প্রশাসনের পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।

ঘরিষার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল রব খান বলেন, মনে হচ্ছে কিছু স্থাপনা সরকারী জায়গায় পড়েছে। তবে কাগজ না দেখে আমি কিছুই বলতে পারবো না।’

অভিযুক্ত দেলোয়ার বেপারী বর্তমানে ইতালীতে অবস্থান করায় এ ব্যাপারে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
ঘড়িষার ইউনিয় ভূমি কর্মকর্তা ফরহাদ হোসেন বলেন, আমি নড়িয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) স্যারের নির্দেশে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বিআরএস জরিপে ওই জায়গা এখনো মালিকানায় রয়ে গেছে। এ ব্যাপারে পূনরায় পরিমাপ বিষয়টি সমাধান করা হবে।

নড়িয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাফি বিন কবির বলেন, সরেজমিনে লোক পাঠিয়েছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাশেদুজ্জামান বলেন, এ বিষয়ে আমার কাছে লিখিত অভিযোগ এসেছে। এসিল্যান্ডকে নির্দেশ দিয়েছি তদন্ত করে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য। তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।