ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ায় আ’লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে নিহত ৪

কুষ্টিয়ার ঝাউদিয়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৪ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৮ জন।
সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ঝাউদিয়া ইউপির আস্থানগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুস্তাফিজুর রহমান রতন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন- আস্তানগর গ্রামের বাসিন্দা আজিজুল হকের ছেলে মতিয়ার রহমান, দাউদ মণ্ডলের ছেলে লাল্টু মণ্ডল, হোসেন মণ্ডলের ছেলে আবুল কাশেম এবং আবুল মালিথার ছেলে আব্দুর রহিম মালিথা। আহতদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আস্তানগর বাজারে কেরামত আলীর সমর্থক আব্দুর রহিম মালিথার সঙ্গে তর্কাতর্কি হয় প্রতিপক্ষের কয়েকজনের সঙ্গে। এক পর্যায়ে কয়েকজন লোক রহিমের উপর ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।

এরপর সংবাদ পেয়ে কেরামত আলীর সমর্থকরা পাল্টা মেহেদী সমর্থকদের ওপর হামলা চালালে দুপক্ষের সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষের মধ্যে লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মতিয়ার, লাল্টু ও আবুল কাশেম রক্তাক্ত জখম হন।

ওসি বলেন, পরে সংবাদ পেয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা পুলিশ আহতদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক চার জনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে, হাসপাতালে ভর্তি ১০ জনের মধ্যে আরও দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আশরাফুল আলম।

ওসি মোস্তাফিজুর রহমান রতন জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এখন পরিস্থিতির পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে। হত্যার ঘটনায় এখনও কেউ অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেনি; অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।