ঢাকা, বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দেশে ফিরলেন পালিয়ে বেড়ানো শ্রীলংকার সাবেক রাষ্ট্রপতি

অবশেষে দেশে ফিরেছেন দেড় মাসের বেশি সময় বিভিন্ন দেশে পালিয়ে থাকা শ্রীলংকার সাবেক রাষ্ট্রপতি গোতাবায়া রাজাপাকসে। শুক্রবার মধ্যরাতের পর গোতাবায়া কলম্বোতে ফেরেন।
শ্রীলংকার একজন জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তার বরাতে এ তথ্য জানায় রয়টার্স।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্যাপক নিরাপত্তার মধ্যে কলম্বোর বন্দরনায়েকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজে অবতরণ করেন গোতাবায়া।

শ্রীলংকার সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর জানায়, গোতাবায়া কলম্বোতে রাষ্ট্রীয় একটি বাংলোতে থাকবেন। এজন্য সেখানে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সাবেক এ রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে একাধিক মন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন।

গণবিক্ষোভের মুখে রাতের অন্ধকারে ১৩ জুলাই দেশ ছাড়ার পর সাবেক এ রাষ্ট্রপতি প্রথমে মালদ্বীপে যান। সেখান থেকে মেডিকেল ভিসায় সিঙ্গাপুর, পরে থাইল্যান্ডে পাড়ি জমান তিনি। এতদিন থাইল্যান্ডের একটি হোটেলে অবস্থান করছিলেন গোতাবায়া। সঙ্গে ছিলেন তার স্ত্রী ইয়োমা রাজাপাকসে।

প্রথমে পরিকল্পনা ছিল আগামী নভেম্বর পর্যন্ত তারা থাইল্যান্ডে থাকবেন। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে আগস্টের মাঝামাঝিতে তার দেশে ফেরার খবর আসে।

এর মধ্যে গত ১‌৮ আগস্ট গোয়াবায়ার যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ড পাওয়ার চেষ্টা করছেন বলে খবর প্রকাশ হয়। তার স্ত্রী একজন মার্কিন নাগরিক। সেজন্য সেখানে তাদের স্থায়ীভাবে থাকার চেষ্টার কথা জানা যায়।

চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জ্বালানি ও খাদ্য ঘাটতি নিয়ে সংকটে পড়লে দেশটিতে জনবিক্ষোভ শুরু হয়। এর আগ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার রাজনীতিতে ছিল রাজাপাকসে সাম্রাজ্যেরই আধিপত্য।

এরপর গণবিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে দেশ ছাড়তে একপ্রকার বাধ্য হন গোতাবায়া। রাতের আঁধারে বিমানবাহিনীর একটি এয়ারক্রাফটে দেশ ছাড়েন তিনি।

রাজাপাকসে পালিয়ে গিয়ে পদত্যাগ করার পর শ্রীলংকার ছয়বারের প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে পার্লামেন্টের ভোটাভুটিতে জয়ী হয়ে দেশটির রাষ্ট্রপতি হয়েছেন।