ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিডার ওএসএস পোর্টালে যুক্ত হলো চার নতুন সেবা

বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) অনলাইন ওয়ান স্টপ সার্ভিস (ওএসএস) পোর্টালে নতুনভাবে যুক্ত হয়েছে চারটি নতুন সেবা। ফলে এখন থেকে বিডার ২০টি সেবা এবং অন্যান্য ২২টি প্রতিষ্ঠানের ৪৭ সেবাসহ মোট ৬৭টি সেবা অনলাইন ওএসএস সিস্টেমের মাধ্যমে প্রদান করা সম্ভব হবে।

মঙ্গলবার (৯ মে) বিডার কনফারেন্স কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করেন বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান (সিনিয়র সচিব) লোকমান হোসেন মিয়া।

এ সময় বিডার ভিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার ও Waiver of Condition 7 প্রদান, যৌথমূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তরের সিঙ্গেল প্রসেস (নামের ছাড়পত্র, কোম্পানি নিবন্ধন ও পেমেন্ট) এবং চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের দখল সনদ প্রদান মোট চারটি সেবাসমূহের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

লোকমান হোসেন মিয়া বলেন, বিডার ওএসএস পোর্টালে নতুন চারটি সেবা যুক্ত হওয়ায় এখন বিনিয়োগকারীরা ঘরে বসেই আরও বেশি বিনিয়োগ সেবা পাবেন। অনলাইন ওয়ান স্টপ সার্ভিস (ওএসএস) পোর্টালের সেবা গ্রহণের জন্য বিনিয়োগকারীদের অফিসে আসার কোনো প্রয়োজন নেই। তারা পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকেই অতি সহজেই মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যেই কাঙ্ক্ষিত সেবা গ্রহণের জন্য আবেদন করতে পারবেন। যদি আবেদনে কোনো কাগজ পত্রের খাতটি থাকে তাহলে তা মোবাইলে এসএমএস বা ইমেইলের মাধ্যমে স্বল্প সময়ের মধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর জাপান সফরের সময়ে মিতসুবিসিসহ সে দেশের শীর্ষ কোম্পানিগুলো বাংলাদেশে বিপুল বিনিয়োগ ও জাপানি কোম্পানিগুলোর জন্য স্পেশাল অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আমরা দেখেছি সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া বাংলাদেশের প্রথম বিজনেস সামিটে অসংখ্য বিদেশি বিনিয়োগকারী ৫০০ ডলার এন্ট্রি ফি দিয়ে বিজনেস সামিটে অংশগ্রহণ করার জন্য বাংলাদেশে এসেছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিডার নির্বাহী সদস্য ড. খন্দকার আজিজুল ইসলাম (অতিরিক্ত সচিব)। তিনি বিডা ওএসএস এর মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের সেবা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, অনলাইন ওয়ান স্টপ সার্ভিস (ওএসএস) পোর্টালে মাধ্যমে সেবা প্রদান সফল করে তুলতে হলে সবার সহযোগিতা দরকার। এজন্য সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিনিয়োগকারীদের ওএসএসের মাধ্যমে সেবা গ্রহণের জন্য উৎসাহিত করতে হবে। আমাদেরকে প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হবে।