ঢাকা, বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাছ কাটার প্রতিবাদে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন

রাজধানীর ধানমন্ডির সাত মসজিদ রোডে ডিভাইডারের দোহাই দিয়ে গাছ কাটার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের ঢাকা মহানগর কমিটি। মঙ্গলবার (১৬ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রকৃতির সঙ্গে ভারসাম্যপূর্ণ উন্নয়ন না হলে তার ফল হয় বিপর্যয়কর। সম্প্রতি রাজধানীর তাপমাত্রা রেকর্ড পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ অবস্থায় অক্সিজেনের অকৃত্রিম উৎস গাছ কাটার সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী। উন্নয়নের নামে গাছ উজাড়ের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানোর পাশাপাশি গাছ কাটা বন্ধের দাবি জানাই।

মানববন্ধনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক মঞ্জু ধর। তিনি বলেন, পরিপূর্ণ একটি গাছ অন্তত দুজন মানুষের সারা বছরের অক্সিজেনের যোগান দেয়। বাৎসরিক ৪৮ পাউন্ড হারে কার্বন-ডাই-অক্সাইড শোষণ করে একটি গাছ গ্রিন হাউজ প্রক্রিয়াকে রুখতে সাহায্য করে। তাই, সারা বিশ্বে যখন প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষার সচেতনতা বাড়াতে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে, তখন বাংলাদেশের বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ উন্নয়নের নামে গাছ কেটে পরিবেশ ধ্বংসের পথে হাঁটছে।

অবিলম্বে ধানমন্ডির সাত মসজিদ রোডের গাছ কাটা বন্ধের দাবি জানিয়ে মঞ্জু ধর বলেন, উন্নয়ন প্রকল্প প্রণীত হয় জনগণের জীবনমান উন্নয়নের জন্য। উন্নয়নের পরিকল্পনায় তাই প্রকৃতি ও পরিবেশকে আত্মীকরণ করতে হবে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষকে বলছি, উন্নয়নের নামে পরিবেশ ধ্বংসের নীতি থেকে সরে আসুন। যেসব গাছ বেআইনিভাবে রাতের অন্ধকারে কেটেছেন, তার পরিবর্তে নগরজুড়ে হাজারো হাছ লাগান।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের ঢাকা মহানগরের সভাপতি মাহাতাবুন্নেসা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক রেহানা ইউনুস, সাংগঠনিক সম্পাদক কানিজ ফাতেমা খান, জুয়েলা জেবুন্নেসা খান প্রমুখ।