ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যতোই মারামারি করুক, মাঠ ছাড়বো না: জায়েদা খাতুন

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুন বলেছেন আমি ২৫ তারিখ পর্যন্ত ভোটের আশায় থাকবো। যতোই মারামারি করুক আমি মাঠ ছাড়বো না। আজমত উল্লা তো পুরান লিডার আমি তো নতুন। উনি একদল করে আর আমি অন্যভাবে। আমার প্রতি এতো অত্যাচার কেনো। এ অত্যাচারের কি বিচার হবে না।

শনিবার (২০ মে) রাত ১১ টায় গাজীপুরের ছয়দানা এলাকায় তার নিজ বাসভবনে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি ভোটারদের ভোট ঠিকমতো পাবেন কিনা সন্দেহ পোষণ করে বলেন, আমি তো এখনি বুঝতাছি ভোট ঠিকমতো পাব না। আপনারা দোয়া করেন আমি যেন ২৫ তারিখ পর্যন্ত সুস্থ থাকি।

৫৭ টি ওয়ার্ডে গেলে সবাই ভোট দিতে চায় কিন্তু টঙ্গীতে গেলেই হামলা করে। যে কয়দিন গেছি হামলা হয়েছে। দুইদিক দিয়ে হামলা করে, পিডাপিডি করে, গাড়িতো দেখছেন কিভাবে ভাংচুর করছে। সাংবাদিকদেরও গাড়ি ভাঙছে। আমাদের সাথে যারা ছিলো তাদের উপর হামলা করেছে, রক্তাক্ত করেছে। যতো রকম বস্তির পোলাপান, সব লাগাইছে। আমাদের লোক তো আজমত উল্লাকে হামলা করে না। আজ হামলার পর পুলিশ আমাকে বাসায় দিয়ে গেছে।

আমি একজন মেয়ে মানুষ, আজমত উল্লা আমাকে কেন এতো ভয় পাচ্ছে। আমি একজন মেয়ে মানুষ, সরকার তো মেয়ে মানুষকে সম্মান করে। আমি বাংলাদেশ সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

ওই সংবাদ সম্মেলনে তার সন্তান গাজীপুরের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম সাথে ছিলেন।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এই হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। আমি ঘড়ি মার্কা জায়েদা খাতুনের প্রধান সমন্বয়ক। নির্বাচনের আর ৩ দিন বাকি রয়েছে। এই মুহূর্তে দুদক আমাকে তলব করেছে। এটির মাধ্যমে কি প্রমাণ হয়। আমি দুদকের কাছে সময় চেয়েছি।