ঢাকা, রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালকিনিতে বালু উত্তোলনের দায়ে জেল ও জরিমানা প্রদান

নদ থেকে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে মাদারীপুরের কালকিনিতে চারজন ব্যবসায়ীকে জেল ও দেড় লাখ টাকা জরিমানা প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন মো. কাওছার-(২৫), মো. তোফাজ্জেল হোসেন-(৫৫), মো কবির হোসেন-(৪৩) ও মো. সবুজ বেপারী-(২৫)। এবং এসময় বেশ কিছু পাইপ ভাংচুর করা হয়। কালকিনি উপজেলার মানবিক স্মার্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার দাশের নেতৃত্বে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাকির হোসেন এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। আজ শুক্রবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা প্রশাসন।


ভ্রাম্যমান আদালত সুত্রে জানা গেছে, পৌর এলাকার পালরদী নদের বিভিন্ন স্থান থেকে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল দীর্ঘদিন যাবত বালু উত্তোলন করে আসছে। এ খবর পেয়ে ওইসব এলাকায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার দাশের দিক নির্দেশনায় দুই ঘন্টা ব্যাপী অভিযান চালিয়েছেন উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি মো. জাকির হোসেন। পরে ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত ওই আসামীদেরকে আটক করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রত্যেককে তিনদিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। এবং দুইটি ড্রেজারের মালিককে দেড় লাখ টাকা জরিমান করেন। এদিকে বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের অভিযান অব্যহত রাখার জন্য জোর দাবী জানিয়ছেন স্থানীয় সচেতন মহল।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন স্থানীয় জনসাধারন বলেন, বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী মিলে দীর্ঘদিন যাবত এই এলাকায় বালু উত্তোলন করে আসছে। তবে বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের অভিযান অব্যহত রাখার জন্য আমরা জোর দাবী জানাচ্ছি।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাকির হোসেন বলেন, ইউএনও স্যারের নির্দেশনায় বালু ব্যবসায়ীদেরকে জেল ও জরিমান প্রদান করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার দাশ বলেন, খবর পেয়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে চারজন বালু ব্যবসায়ীকে কারাদন্ড ও দেড় লাখ টাকা জরিমান প্রদান করা হয়েছে। তবে নিয়মিত এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।