ঢাকা, রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা ভেঙে দিলেন নেতানিয়াহু

ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর কৌশলগত যুদ্ধ বিরতির নিন্দা জানানোর সঙ্গে ছয় সদস্যকে নিয়ে গঠিত যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা ভেঙে দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু।

এর আগে রবিবার (১৬ জুন) সন্ধ্যায় ইসরায়েলি এই যুদ্ধবাজ নেতা রাজনৈতিক নিরাপত্তা মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠক করে সোমবার (১৭ জুন) তিনি এ ঘোষণা দেন।

আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, নেতানিয়াহুর সঙ্গে বিরোধের জের ধরেই সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গ্যান্টজ পদত্যাগ করেছেন।

টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে গ্যান্টজ বলেছিলেন, নেতানিয়াহু আমাদের প্রকৃত বিজয়ের দিকে অগ্রসর হতে বাধা দিচ্ছেন। সে কারণে আমি যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা থেকে বিদায় নিচ্ছি।

এদিকে, নেতানিয়াহুর অতি ডানপন্থী জোটের অংশীদারগণ নতুন যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা গঠনের চাপ দিচ্ছেন। বেনি গ্যান্টজ যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাদের পর এ আবেদন আরও জোড়ালো হচ্ছে।

জেরুজালেম পোস্টের এক প্রতিবেদনে জাতীয়তাবাদি ধর্মীয় অর্থমন্ত্রী বেজালেল স্মোট্রিচ এবং জাতীয় নিরাপত্তা মন্ত্রী ইতামার বেন গভির যুক্তরাষ্ট্রসহ মিত্র দেশের চাপ সত্ত্বেও গাজায় আরও অধিকা হামলা চালানোর দাবি জানিয়ে আসছে। এছাড়া তারা যুদ্ধকালীন নতুন মন্ত্রিসভা গঠনেরও আহ্বান জানিয়েছে।

তবে নেতানিয়াহু তাদের আবেদন প্রত্যাখান করেছে। গ্যান্টজের সঙ্গে যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার একটি চুক্তি ছিল। কিন্তু তিনি পদত্যাগ করায় যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার প্রয়োজন নেই বলে জানান প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু এখন গাজা যুদ্ধ নিয়ে মন্ত্রিদের একটি ছোট দলের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাবেন। যাদের মধ্যে রয়েছে প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট এবং কৌশলগত পররাষ্ট্রমন্ত্রী রন দারমার।

এদিকে, ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর কৌশলগত যুদ্ধ বিরতির নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। এই পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছেন ইসরাইলের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ইতামার বেন গিভিরও।

রবিবার (১৬ জুন) ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। ত্রাণের সরবরাহ স্বাভাবিক করতে গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলে কৌশলগত এই বিরতি ঘোষণা করেছে প্রতিরক্ষা বাহিনী।