ঢাকা, সোমবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচ স্থগিত

শেষ পর্যন্ত স্থগিতই হয়ে গেল ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার ম্যাচ। ফুটবল দেখল স্মরণীয় এক ঘটনা। আন্তর্জাতিক ম্যাচের পাঁচ মিনিট পার হওয়ার পরও কোয়ারেন্টাইন জটিলতার কারণে বন্ধ হয়ে গেছে ম্যাচ।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের এই ম্যাচটি স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

ব্রাজিলিয়ান হেলথ রেগুলেটরি এজেন্সির নির্দেশনা অনুয়ায়ী, ব্রাজিলিয়ান ছাড়া অন্য কেউ ব্রিটেন, উত্তর আয়ারল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারত থেকে ব্রাজিলে প্রবেশ নিষিদ্ধ। যাদের ছাড় দেওয়া হয়েছে, তাদের অবশ্যই দেশটিতে আসার পর ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

কিন্তু এই নিয়ম মানা হয়নি আর্জেন্টিনার স্কোয়াডে থাকা চার ফুটবলার এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো চেলসো ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোর ক্ষেত্রে। নিয়ম না মানলেও তাদের তিনজনকে একাদশে রাখে আর্জেন্টিনা।

খেলা শুরুর আগে বাধা না দিলেও ম্যাচ শুরুর পর তৎপর হন ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

বেশ কিছুক্ষণ আর্জেন্টিনার কোচ ও খেলোয়াড়দের সঙ্গে তর্ক করেন তারা। পরে মাঠ ছেড়ে চলে যান আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। খানিক বাদে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি মাঠে ফেরেন। এরপর তিনি বেশ কিছুক্ষণ কথা বলে আবার ড্রেসিং রুমে ফেরেন। এরপরই খেলা স্থগিতের ঘোষণা আসে|

যা বললেন আর্জেন্টিনার কোচ

এ ঘটনায় আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্ক্যালোনি চটেছেন বেশ। ম্যাচের মাঝপথে খেলা বন্ধ করায় ক্ষুব্ধ তিনি। কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলার সময় স্ক্যালোনি বলেছেন, ‘এই চার ফুটবলারকে কেন হোটেল থেকে তুলে নেওয়া হলো না।’

গত তিনদিন ধরেই ব্রাজিলে আছে আর্জেন্টিনা ফুটবল দল। এই সময়ে তারা করেছে অনুশীলনও। কিন্তু ম্যাচ শুরুর পর কেন হঠাৎ ব্রাজিলিয়ান স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা তৎপর হলেন সেটা বুঝতে পারছেন না আর্জেন্টিনা কোচ। ‘কেউ আমাদের কিছু জানায়নি বলেও দাবি তার।

এই ঘটনা বিব্রতকর : মেসি

প্রথমে সব আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়দের সঙ্গে মাঠ ছেড়েছিলেন লিওনেল মেসি। তখনও মাঠে ছিলেন ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়রা। সতীর্থদের ড্রেসিং রুমে রেখে একাই মাঠে ফেরেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। বেশ কিছুক্ষণ কথা বলার পর হতাশ ভাব দেখা যায় তার মধ্যে।

এ সময় ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে ঘটনাটি বিব্রতকর দাবি করেন। তিনি বলেন, ‘এই ঘটনা খুব বিব্রতকর। আমরা ব্রাজিলে তিন দিন ধরে আছি। তখন কিছুই হয়নি।’

ম্যাচ বাতিল হলে পূর্ণ পয়েন্ট পাবে আর্জেন্টিনা

স্থগিত হয়ে যাওয়া ম্যাচটি যদি বাতিল হয়ে যায়, তাহলে পূর্ণ তিন পয়েন্ট পাবে আর্জেন্টিনা। ইতোমধ্যেই সেটি জানিয়ে দিয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল।

কারণ জানেন না আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট

এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো চেলসো ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোর কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম না মানায় ম্যাচে বিঘ্ন ঘটানোর কারণ জানেন না আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ক্লদিও তাপিয়াও।

তিনি বলেছেন, ‌তারা কোনো একটা কারণে ম্যাচে বিঘ্ন ঘটিয়েছে, কিন্তু ওই কারণটা আমরা জানি না। যখন তারা আমাদের অজ্ঞাত বিষয়ের কারণে ম্যাচে বাধা দেবে। তখন ম্যাচ অবশ্যই স্থগিত হওয়া উচিত।