ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাহমুদউল্লাহর অলরাউন্ড পারফরম‌্যান্সে জয়ে ফিরল মোহামেডান

প্রথমে ব‌্যাটিংয়ে ফিফটি। পরবর্তীতে বল হাতে উইকেট। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের এমন অলরাউন্ড পারফরম‌্যান্সের খোঁজে ছিল মোহামেডান।

ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগের তৃতীয় ম‌্যাচে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহকে পাওয়া গেল অলরাউন্ডার ভূমিকায়। তার দ্যুতি ছড়ানো পারফরম‌্যান্সে সুপার লিগে প্রথম জয় পেল মোহামেডান। রোমাঞ্চ ছড়ানো ম‌্যাচে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে ২০ রানে হারিয়েছে মতিঝিল পাড়ার দলটি।

রোববার ফতুল্লায় আগে ব‌্যাটিং করে মোহামেডান ৯ উইকেটে ২৪০ রান করে। জবাবে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স সবকটি উইকেট হারিয়ে ২২০ রানে থেমে যায়। ব‌্যাটিংয়ে ৯৫ বলে ৭১ রানের পর বল হাতে ৩৭ রানে ১ উইকেট নিয়ে মোহামেডানের জয়ের নায়ক মাহমুদউল্লাহ।

মোহামেডানের ব‌্যর্থতার বড় কারণ ছিল টপ অর্ডার। আজও তাদের টপ অর্ডার হাসেনি। ইমরুল কায়েস ২ রানে আউট হন। রুবেল মিয়ার ব‌্যাট থেকে আসে ১১ রান। মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন করেন কেবল ১ রান। ১৭ রানে ৩ উইকেট হারানো মোহামেডান লড়াই করে চতুর্থ উইকেটে। আব্দুল মজিদকে সঙ্গে নিয়ে মাহমুদউল্লাহ করেন লড়াই। ১৩৩ রানের জুটি গড়েন দুজন।

এ সময়ে দুজনই তুলে নেন ফিফটি। কিন্তু ইনিংস বড় করতে পারেননি কেউ। ১৫ রানের ব‌্যবধানে মজিদ (৬৩) ও মাহমুদউল্লাহ (৭১) আউট হন। সেখান থেকে আরিফুল হকের ৪৪ বলে ৫৫ রানের ইনিংসে মোহামেডান ২৪০ রানের লড়াকু পুঁজি পায়।

গাজী গ্রুপের হয়ে বল হাতে ৩১ রানে ৩ উইকেট নিয়ে সেরা ছিলেন টিপু সুলতান। ২টি করে উইকেট পেয়েছেন মোহাম্মদ এনামুল ও জয়নাল ইসলাম।

লক্ষ‌্য তাড়ায় তাদের শুরুটাও ভালো হয়নি। শাকিল হোসেন (২) ও ফরহাদ হোসেন (২৩) দ্রুত আউট হন। কিন্তু মেহেদী মারুফ ও মেহরব প্রতিরোধ গড়ে ভালো জবাব দিচ্ছিল। মেহেদী ৮ রানের জন‌্য ফিফটি মিস করলেও মেহরাব তুলে নেন ফিফটি। বাঁহাতি ব‌্যাটসম‌্যান মোহামেডানের পথের কাঁটা হয়ে ছিলেন। ৪৩তম ওভারে নাজমুল অপু ৬৩ রানে তাকে ফেরালে জয়ের পথ মসৃণ হয়ে যায়। মাঝে কেউ দলের হাল ধরতে পারেননি।

আকবর আলী ২৩ রান করেন করেন। জুবারুল ইসলাম করেন ১৮ রান। তাতে পরাজয়ের ব‌্যবধান কমে মাত্র।

সম্মিলিত বোলিং আক্রমণে মোহামেডানের জয় নিশ্চিত হয়। নাজমুল অপু, এনামুল হক, মুশফিক হাসান ও খালেদ আহমেদ ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও আরিফুল।

শিরোপা জয়ের সুযোগ নেই মোহামেডানের। লিগের শেষ দুই ম‌্যাচ জিততে পারলে স্বস্তির সুযোগ পাবে দলটি।