দলীয় প্রতীকে ঢাকা সিটি নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি

সোমবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ | 18 বার

দলীয় প্রতীকে ঢাকা সিটি নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি

দলীয় প্রতীকে আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশগ্রহণের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। গত ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ‘রাতে ভোট ডাকাতি’ হয়েছে অভিযোগ করে দলটি বর্তমান সরকারের অধীনে আর কোন নির্বাচনে যাবে না বলে সিদ্ধান্ত নিলেও সেই অবস্থান থেকে সম্প্রতি সরে এসেছে।

গত শনিবার দলের স্থায়ী কমিটির সভায় আগামী ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় ৮ উপজেলাসহ পরবর্তীতে সব স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিকে ঢাকা উত্তরে তাবিথ আউয়াল ছাড়াও সম্ভাব্য প্রার্থী হিসাবে লবিয়িং করছেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি এম এ কাইয়ুম, যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, বিএনপি নেতা আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, ২০ দলীয় জোটের শরিক এলডিপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ।

ঢাকা দক্ষিণে আরো যারা প্রার্থী হতে প্রচারণা ও লবিয়িং করছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন: বিএনপির বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুন নবী সোহেল, সাবেক ডেপুটি মেয়র আবদুস সালাম, নাসির উদ্দিন পিন্টুর স্ত্রী নাসিমা আক্তার কল্পনা, ব্যবসায়ী টিপু সুলতান, সাবেক কমিশনার কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধূরী বলেন, ‘গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ন্যূনতম স্পেস দিচ্ছে না সরকার। নির্বাচনে নেতা-কর্মীরা মাঠে সক্রিয় থাকতে পারে। তাই সামনে যত প্রতিকূল পরিবেশই আসুক, সব নির্বাচনেই অংশ নেব আমরা।’

দলের একজন সিনিয়র নেতা বলেন, ভোট বর্জনে নেতা-কর্মীদের নিস্ক্রিয় না করে, নির্বাচনের রাজনীতিতে দলকে সক্রিয় রাখতে চান হাইকমান্ড। সর্বশেষ উপজেলা নির্বাচন বর্জন করে আমাদের লাভ হয়নি।

যেহেতু সংগঠনকে শক্তিশালী করে জাতীয় নির্বাচনের দাবি আদায়ে আন্দোলনে যেতে হবে, তাই নির্বাচন বর্জন করে সংগঠনকে দুর্বল করার সিদ্ধান্ত আর বিএনপি নিতে চায় না।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা উপজেলাসহ স্থানীয় সরকারের নির্বাচনগুলোতে অংশগ্রহণের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কৌশলগত কারণে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

দুদক পরিচয় দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোন, ধরা খেলো ভুয়া দুদক কমিশনার

Design & Developed by: Ifad Technology