অনুদান সংগ্রহের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘একদেশ’ উদ্বোধন

শনিবার, ১৬ মে ২০২০ | ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ | 18 বার

অনুদান সংগ্রহের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘একদেশ’ উদ্বোধন

করোনাভাইরাসের বিরাজমান পরিস্থিতিতে দেশের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছ থেকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অনুদান ও আর্থিক সহায়তা সংগ্রহের জন্য শুক্রবার ডিজিটাল ক্রাউডফান্ডিং প্লাটফর্ম ‘একদেশ’ উদ্বোধন করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি একদেশকে দাতা ও গ্রহীতার মধ্যকার সেতু উল্লেখ করে ডিজিটাল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ প্ল্যাটফর্মের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দুর্ভিক্ষ খাদ্যের অভাবে হয় না বরং সুষ্ঠু বণ্টনের অভাবে হয়ে থাকে। সারা দেশের মানুষের যাকাত এবং আর্থিক অনুদানের এ সেতুবন্ধন তৈরির মাধ্যমে সুষ্ঠু বণ্টনের পথে আমরা এগিয়ে যাব। মানুষ এ প্ল্যাটফর্মটির মাধ্যমে তাদের অনুদান দিতে পারবেন।’

দেশের প্রথম ক্রাউডসোর্সিং প্ল্যাটফর্মটির কার্যক্রম শুরুর মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির একটি জায়গা তৈরি হলো বলে উল্লেখ করেন তিনি।

একদেশ ওয়েবসাইটে https://ekdesh.ekpay.gov.bd/ প্রবেশ করে অথবা একদেশ অ্যাপের মাধ্যমেও জনগণ যাকাত কিংবা আর্থিক অনুদান প্রদান করতে পারবেন।

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, ব্র্যাক, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন, সেন্টার ফর যাকাত ম্যানেজমেন্ট, সিআরপি এবং সাজেদা ফাউন্ডেশনকে এ অনুদানের গ্রহীতা হিসেবে যুক্ত করা হবে।

ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড কিংবা মোবাইল পেমেন্ট বা ডিজিটাল ওয়ালেটের মাধ্যমে নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে যাকাত কিংবা অনুদান দেয়ার এ প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছে এটুআই।

ব্যাংক এশিয়ার সহযোগিতায় সুইফ কোডের মাধ্যমেও জাতীয় পেমেন্ট গেটওয়ে একপে এর মাধ্যমে অনুদান দেয়া যাবে।

প্রবাসীরাও বাংলাদেশ ব্যাংকের মধ্যস্ততায় রেমিটেন্সের টাকা একদেশ অ্যাপের মাধ্যমে দিয়ে মানবিক তহবিল গড়ে তুলতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন, বলে প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, এ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে প্রত্যেকে তার যাকাত বা অনুদান ঠিক যেখানে প্রদান করতে চান সেখানেই প্রদান করতে পারবেন।

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির সময়ে দারিদ্র্যের কবলে পড়া বিপুল সংখ্যক অসহায় মানুষকে সহায়তা করার জন্য এ প্ল্যাটফর্মটি চালু করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, এটুআই-এর পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী, এটুআই প্রকল্প পরিচালক মো আব্দুল মান্নান, বাংলাদেশ স্কাউটের প্রেসিডেন্ট আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ডিজি আনিস মাহমুদ, ব্র্যাকের সিইও আসিফ সালেহ, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান কিশোর কুমার দাস, সাজেদা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জাহিদা ফিজা কবির, ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা শরিফুল ইসলাম, ব্যাংক এশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরফান আলী, সিআরপি প্রধান নির্বাহী শফিকুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

স্কুল ছাত্রকে গুলি করে হত্যা করলো ছাত্রলীগ সভাপতি

Design & Developed by: Ifad Technology