ঢাকা, সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আমাজন ধ্বংসের অভিযোগে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মামলা

‘পৃথিবীর ফুসফুস’ খ্যাত আমাজন রেইন ফরেস্ট ধ্বংসে কথিত ভূমিকার জন্য ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারোর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) অভিযোগ তোলা হয়েছে।
মঙ্গলবার অস্ট্রিয়ার পরিবেশগত ন্যায়বিচার প্রচারক সংগঠন অলরাইজ হেগভিত্তিক আদালতে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করে। মানুষের জীবনহানির সঙ্গে বনভূমি ধ্বংসকে যুক্ত করার প্রথম ঘটনা এটি।

আমাজনে বনভূমি পোড়ানো ও কৃষি খাত থেকে যে পরিমাণ গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন হয়, তা ইতালি বা স্পেনের মোট বার্ষিক নির্গমনের চেয়ে বেশি। বন উজাড়ের ফলে এ অঞ্চলে যে পরিমাণ কার্বন ডাই–অক্সাইড নির্গত হয়, তা বাকি আমাজন শোষণ করতে পারে না।

অলরাইজের পক্ষ থেকে বলসোনারো ও তাঁর প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাবগুলোর সঙ্গে সরাসরি জড়িত থাকায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

বলসোনারোর বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়েছে, ব্রাজিলীয় নেতা ব্যাপক প্রচার চালিয়ে পরিবেশের রক্ষকদের হত্যা করেছেন এবং বন উজাড়ের কারণে গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমনের মাধ্যমে বিশ্বের জনগোষ্ঠীকে বিপন্ন করে তুলছেন। বলসোনারোর প্রশাসন আমাজনকে রক্ষার জন্য কাজ করে এমন আইন, সংস্থা ও ব্যক্তিদের পদ্ধতিগতভাবে অপসারণ, অকার্যকর ও নির্মূল করার চেষ্টা করছে।

এ অভিযোগের বিরুদ্ধে বলসোনারোর পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

অভিযোগে বলা হয়েছে, প্রতিবছর চার হাজার বর্গকিলোমিটার রেইন ফরেস্ট ধ্বংসের জন্য দায়ী বলসোনারো। ২০১৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকে দেশটিতে বনভূমি ধ্বংসের হার বেড়েছে ৮৮ শতাংশ।

সূত্র: সিএনবিসি