গত অর্থবছরের চেয়ে কৃষি খাতে জিডিপি প্রবৃদ্ধি কমছে ২ শতাংশ

শনিবার, ০৬ এপ্রিল ২০১৯ | ৬:৫৩ অপরাহ্ণ | 55 বার

গত অর্থবছরের চেয়ে কৃষি খাতে জিডিপি প্রবৃদ্ধি কমছে ২ শতাংশ

জিডিপি-তে সরকারি ও বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ, রফতানি ও রেমিট্যান্সের অবদান বাড়লেও প্রতিবছর কৃষি খাতের অবদান কমছে। গতবারের তুলনায় চলতি অর্থবছরে জিডিপি-তে কৃষি খাতের অবদান কমছে প্রায় ২ শতাংশ। গত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে জিডিপি-তে কৃষি খাতের অবদান ছিল ১১ দশমিক ২ শতাংশ। চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এটা কমে ৯ দশমিক ১৩ শতাংশ দাঁড়াবে বলে অতি সম্প্রতি প্রাক্কলন করেছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)।

সংশ্লিষ্টদের মতে, কৃষিখাতে সরকারের ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার কারণেই এমনটা হচ্ছে। কারণ ব্যাংকগুলোর অধিকাংশই বড় বড় ঋণ দেয়ার পিছনে ছুটছে। সে তুলনায় কৃষিখাতে ঋণ বিতরণে ব্যাংকগুলোর আগ্রহ বরাবরই কম।

তারা বলছেন, সরকারি ও বেসরকারি কোন ব্যাংকই কৃষিখাতে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে পারেনি। ব্যাংকগুলো যদি দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কৃষিঋণ বিতরণ করতো, তাহলে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার আরো বাড়তো বলে মনে করেন তারা।

সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, অর্থনীতির প্রত্যেকটি খাতে আমাদের প্রবৃদ্ধি ভালো। মূল খাতে উৎপাদন বাড়ায় রফতানি ও বিনিয়োগ বেড়েছে। সে জন্য জিডিপির প্রবৃদ্ধি ভালো।
সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. এ বি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, প্রবৃদ্ধি অর্জনের এই ঊর্ধ্বমুখী ধারা অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখে। তবে চ্যালেঞ্জ অনেক। এক্ষেত্রে ব্যাংক খাতে সুশাসন ও জবাববিদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের পর, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল সরকার। কিন্তু অর্থবছরের প্রথম আট মাসের (জুলাই-ফেব্রুয়ারি) তথ্য বিশ্লেষণ করে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো যে প্রাক্কলন করেছে, এতে চলতি অর্থবছর শেষে জিডিপি প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ; যা বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

এদিকে সম্প্রতি চলতি অর্থবছর শেষে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ৮ শতাংশের বেশি হওয়ার আভাস দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। তবে বিশ্বব্যাংক বলেছে, এ বছর বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ।

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের মহাসচিব গ্রেফতার

Development by: Creative it Solution