ঢাকা, শুক্রবার, ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
জয়পুরহাটে অনির্দিষ্ট কালের জন্য কলম বিরতি

আইনজীবী কর্তৃক সহকারীকে জুতা পেটা : কলম বিরতি ও মানববন্ধন

জয়পুরহাটে আইনজীবী তার সহকারী (মুহুরী) কে জুতা দিয়ে পেটানোর অভিযোগে অনির্দিষ্ট কালের জন্য কলম বিরতি ও মানববন্ধন করেছে আইনজীবী সহকারী সমিতি। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা আইনজীবী সমিতির সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

ঘটনার বিবরণ, ভুক্তভোগী ও আইনজীবী সহকারীরা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ২ টার সময় এ্যাডঃ আবু হোসেন চৌধুরী, তার সহকারী আব্দুল মোমিন মিন্টুকে একটি রেকর্ড সংক্রান্ত নকল আনাকে কেন্দ্র করে আইনজীবীর সেরেস্তাতে প্রকাশ্যে জুতা দিয়ে মেরে লাঞ্চিত করে। এ ঘটনা আইনজীবী সহকারীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুদ্ধ হয়ে তাৎক্ষণিক তারা কলম বিরতি ঘোষণা করে আইনজীবী সমিতির সামনে এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করে।

এ সময় জয়পুরহাট আইনজীবী সহকারী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান আলী, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার রওশন বারী জুয়েলসহ আইনজীবী সহকারী সমিতির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধন চলাকালে আইনজীবী সহকারী সমিতির নেতারা বলেন, এ ঘটনায় অভিযুক্ত এ্যাডভোকেটের শাস্তি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আমরা কলম বিরতি পালন করবো।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আইনজীবী এ্যাডঃ আবু হোসেন চৌধুরী মুঠোফোনে বলেন, আমি সিভিল মামলা করি। আজ থেকে তিন সপ্তাহ আগে একটি খতিয়ান তোলার কথা ছিল। কিন্তু সে ঐ খতিয়ান না তুলে অন্য একটি খতিয়ান তোলে। এরপর একটি মামলার জাবেদা নকল কপি তোলার জন্য আমার নিকট টাকা নেয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত জাবেদা নকল কপি আমাকে এনে দেয়নি। গত শনিবার অসুস্থতার কথা বলে বাড়িতে যায় এবং রবিবার আসে। সোমবার থেকে আর আসেনা। আমি তাকে বলি তুমি না আসলে মামলার কপিগুলো দিয়ে যাও। কিন্তু সে তা করে না। এতে আমাকে মোককেলের কথা শুনতে হচ্ছে। আমি তাকে আজ আবারও ডাকি এবং সে কোন মামলার কপি নিয়ে না আসায় তাকে জুতা দিয়ে একটি বারি মারি।

জয়পুরহাট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডঃ রফিকুল ইসলাম তালুকদার তরুণ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। বিস্তারিত জানা নেই, সাধারণ সম্পাদকের সাথে কথা বলুন। আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ শাহিনুর রহমান শাহিন বলেন, আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ আসলে আমরা তদন্ত কমিটি করে দেয়। তদন্ত রিপোর্টের পর যে অভিযুক্ত হবে তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নেব।